অলিম্পিক মহাযজ্ঞে বাংলাদেশের সাগর

‘গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থ’খ্যাত বিশ্বের সর্ববৃহৎ ক্রীড়াযজ্ঞ অলিম্পিকে অংশ নেবেন সাগর ইসলাম। ‘ওয়াইল্ড কার্ড এন্ট্রি’ নয়, তিনি বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন স্বীয় যোগ্যতায়।

২৬ জুলাই প্যারিসে পর্দা উঠবে ৩৩তম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক প্রতিযোগিতার। অলিম্পিকের প্রতিটা ইভেন্টে অংশ নেওয়ার জন্য রয়েছে যোগ্যতার নির্ধারিত মাপকাঠি। এ ছাড়াও বৈশ্বিক কোটা ভিত্তিতে দেওয়া হয় ‘ওয়াইল্ড কার্ড’। বাংলাদেশ ১৯৮৪ সাল থেকে অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছে। বেশিরভাগ অংশগ্রহণ কোটাভিত্তিক। তবে গলফার সিদ্দিকুর রহমান ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিক আর তীরন্দাজ রোমান সানা ২০২০ সালের টোকিও অলিম্পিকে সরাসরি অংশ নেন। 

প্যারিস অলিম্পিকে বাংলাদেশ থেকে কতজন খেলোয়াড় সুযোগ পাবেন, তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ) বিভিন্ন ইভেন্টে ছয়জন খেলোয়াড়ের জন্য ‘ওয়াইল্ড কার্ড’ চেয়ে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির কাছে আবেদন করে রেখেছে। কিন্তু সাগরকে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির কৃপা পাওয়ার অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে না। তুরস্কের আনতানিয়ায় প্যারিস অলিম্পিক আর্চারি বাছাই টুর্নামেন্টের রিকার্ভ এককে ফাইনালে ওঠেন সাগর। অবশ্য সেমিতে উঠেই নিশ্চিত হয় তার অলিম্পিকে সরাসরি অংশগ্রহণ। ১৭ জুন অনুষ্ঠিত ফাইনালে সাগর হেরে গেছেন উজবেকিস্তানের সাদিকোভ আমিখনের বিপক্ষে ৬-০ সেটে। জিতেছেন রৌপ্য পদক। অলিম্পিকে সরাসরি খেলার সুযোগের পাশাপাশি রুপা জেতাও তার জন্য বড় অর্জন।

সাগর বিকেএসপির দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী। মাত্র তিন বছর বয়সে বাবাকে হারান তিনি। বাবা শাহ আলম ছিলেন টেম্পো মিস্ত্রি। স্বামীহারা সেলিনা সংসার চালাতে কঠোর সংগ্রাম করছেন। রাজশাহী শহরের বঙ্গবন্ধু কলেজের সামনে টং দোকানে চা বিক্রি করেন তিনি। ভাইবোনদের মধ্যে সবার ছোট সাগর। সাগরের সাফল্যে দারুণ গর্বিত মা সেলিনা জানান, ‘আমার দোকানের সামনেই আর্চারি ক্লাব রয়েছে। সাগর সেই ক্লাবের মাঠে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকত। ওর আগ্রহ দেখে এক সময় আর্চারি ক্লাবে ভর্তি করাই। অনেকে কটাক্ষ করেছে। সাগরের আর্চারির প্রতি আগ্রহকে বলেছে, গরিবের ঘোড়া রোগ! কিন্তু আমরা হতাশ হইনি। পরে ক্লাস সেভেনে ভর্তি করাই সাভার বিকেএসপিতে।’

সাগরের মায়ের পরিশ্রম সার্থক হয়েছে। সাগর প্যারিস অলিম্পিকে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন। সাগরের মা চান ছেলে অলিম্পিক থেকেও পদক জিতে আনুক, যা কেউ কখনো পারেনি। তিনি ছেলের জন্য দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //