কোয়ারেন্টিন আনন্দময় করার টিপস

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। আর তাই লকডাউন করা হচ্ছে বিভিন্ন শহর, বন্ধ করা হচ্ছে যান চলাচল এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। 

করোনার সংক্রমণ রোধে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হচ্ছে অনেককেই। এ পরিস্থিতিতে কেউ কেউ একাকীত্ব অনুভব করেন। কেউ কেউ আবার পরিস্থিতির সাথে মোকাবিলা করতে গিয়ে হাঁপিয়ে ওঠেন। কিন্তু আপনি চাইলে এমন পরিস্থিতে আনন্দময় ও উপভোগ্য করে তুলতে পারেন।

যেভাবে কোয়ারেন্টিনকে উপভোগ্য করে তুলবেন তা হলো:

বই পড়া

আপনার একাকীত্বের সময়কে উপভোগ্য করতে পারেন বই পড়ে। এতদিন যে বইগুলো পড়া হয়নি, যে বইগুলো খুব আলোচিত সেগুলো পড়ে ফেলুন। 

মজাদার রান্না

খেতে কে না ভালোবাসে? আর যদি হয় নতুন রেসিপি তাহলে তো কথা-ই নেই। গৃহবন্দী সময়কে আনন্দময় করতে নতুন রেসিপি রান্না করতে পারেন। প্রয়োজনে ইউটিউবের সাহায্য নিতে পারেন। এতে আপনার ভালো সময় কাটবে। সেই সাথে রান্নাও হয়ে যাবে। 

শরীরচর্চা

কোয়ারেন্টিনে থাকতে থাকতে যদি হাঁপিয়ে ওঠেন, তাহলে ঘরেই হাঁটাহাঁটি করুন। প্রয়োজনে ব্যায়াম করুন। মনে রাখবেন সারাদিন শুয়ে বসে থাকলে ওজন বাড়ে। 

আসবাব পরিষ্কার

নিজেকে ব্যস্ত রাখার জন্য কোয়ারেন্টিনের এই সময়টাতে ঘরের কাজ করুন। ঘরদোর পরিস্কার করার পাশাপাশি আসবাবপত্রও মুছে ফেলুন। 

টেলিভিশন

কোয়ারেন্টিনের সময়কে উপভোগ করতে পারেন টেলিভিশন দেখার মাধ্যমে। মজাদার নাটক, সিনেমা, সিরিয়ালগুলো দেখুন। প্রাণখুলে হাসুন। এতে মানসিকভাবে ভালো থাকবেন।

আয়করের হিসাব-নিকাশ

হাস্যকর শোনালেও এই সময়ে ঠান্ডা মাথায় বসে আপনি নিজের আয়করের হিসাব-নিকাশ করে ফেলতে পারেন। তবে খুব বেশি চাপের হয়ে গেলে হাল ছেড়ে দেয়াই ভালো।

দক্ষতা বাড়াতে নতুন কিছু শেখা

কোয়ারেন্টিনে থাকার দিনগুলোতে অনলাইন থেকে আপনি নতুন কিছু শিখতে পারেন। শিখতে পারেন নতুন কোনো ভাষা। অনলাইনে সহজেই এটা করা যায়, কোথাও কোথাও বিনামূল্যেই পাবেন।

সংগীতচর্চা

আপনি যদি গানের চর্চা করতে ভালোবাসেন, তাহলে কোয়ারেন্টিনের সময়ে গানের দিকে ঝোঁক বাড়ান। নিজেকে নিয়ে মত্ত হোন। মনের আনন্দে গান গাইতে থাকুন। 

প্রার্থনা

১৪ দিন গৃহবন্দী থাকলে অফুরন্ত সময় পাওয়া যায়। এ সময়ে নিজ নিজ ধর্ম অনুসারে স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা ও আমল করতে পারেন। এতে মানসিক চাপ কমবে।

মন্তব্য করুন

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh